হা’রানো মোবাইল খুঁজে বের করাই যার নে’শা

কেউ তাকে ডাকেন মোবাইলের যাদুকর কেউবা মোবাইল কাদের। তিনি গুলশান থা’নার এএসআই আব্দুল কাদের। হা’রানো মোবাইল খুঁজে বের করাই যার অন্যতম নে’শা। কর্মজীবনে ছিনতাই অথবা হারিয়ে যাওয়া অন্তত তিন হাজার মোবাইল খুঁজে তিনি তুলে দিয়েছেন প্রকৃত গ্রাহকের হাতে।

মোবাইল হা’রানোর সাধারণ ডায়েরি হলেই ডাক পড়ে তার। ম’রুভূমিতে সুই খোঁজার চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাঠে নেমে পড়েন তিনি। কর্মক্ষেত্রের ব্যস্ততায় কখন সকাল গড়িয়ে দুপুর বা বিকেল হয় তা খুব একটা টের পান না।

২০০৫ সালে কনস্টেবল হিসেবে কর্মজীবন শুরু কাদেরের। ষোল বছরের চাকরী জীবনের অর্ধেকের বেশী সময় পার করেছেন হা’রানো মোবাইল উ’দ্ধারের নে’শায়। কোনোটিতে সময় নিয়েছেন পাঁচ দিন, কোনোটির জন্য লেগে ছিলেন দুই বছর। মোবাইল খোঁজার ক্ষেত্রে বাজারমূল্য তার কাছে তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয়।

তিনি বলেন, অনেকসময় গরীব রিক্সাওয়ালা কিংবা শ্রমিকরা তাদের হা’রানো ফোন উ’দ্ধারের আশায় আমা’র কাছে এসে জিডি করেন। সমান গুরুত্বের সাথেই আমি তাদের হা’রানো মোবাইল উ’দ্ধারের চেষ্টা করি। ২০১৩ সাল থেকে প্রায় তিন হাজার হা’রানো মোবাইল উ’দ্ধার করেছেন তিনি। বিগত আড়াই বছরে শুধু গুলশান থা’নার জিডির বিপরীতেই ৬০০ মোবাইল গ্রাহককে ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, অনেক দামি জিনিস হা’রানোর চাইতে মোবাইল হা’রানোর ক’ষ্ট অনেক বেশী। জিডি করার পর ফোন উ’দ্ধার করে ভুক্তভোগীকে ফোন দিলে তারা অনেকে বিশ্বা’সই করতে চায়না।

প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পাঁচ শতাধিক অ’ভিযোগ আসে কাদেরের কাছে। নিজ থা’না ছাড়াও নানা স্থান থেকে হা’রানো মোবাইল খুঁজে পেতে ভুক্তভোগীরা আসেন গুলশান থা’নায়।

এরই মধ্যে পু’লিশ থেকে ১৬ বার পুরস্কৃত হয়েছেন কাদের।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*